What Is the Best Way to Speak English?

Introduction:

What is the best way to speak English? আজ এই প্রশ্নটি নিয়ে আলোচনা করবো। যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয়, তাদের সবার প্রশ্ন’ ’ইংরাজীতে কথা বলতে পারার সবচেয়ে ভাল উপায় কি? আসলে, এমন কোন একক পদ্ধতি নেই, যার মাধ্যমে তুমি তোমার ইংরেজী বলার লক্ষ্যে পৌঁছাতে পারবে।  ইংরেজি বলতে পারাটা একটা দক্ষতা। অন্যান্য যে কোন কাজের দক্ষতা যেমন বারবার Practice করে ও বিভিন্ন Technique অবলম্বন করে আয়ত্ব করতে হয়, ইংরেজিতে কথা বলার দক্ষতা অর্জনের জন্যও তেমনি (1) নিয়মিত Practice  করা ও (2) অন্যরা, যাদের মাতৃভাষা ইংরেজি নয়, তারা কিভাবে ইংরেজি ভাষাকে আয়ত্ব করতে সফল হয়েছে, তা জেনে নিয়ে অগ্রসর হওয়া। এই দুুটো টেকনিককে মাথায় রেখে চলো আমরা জেনে নেই spoken English বলতে কি বুঝি এবং ইংরেজিতে কথা বলতে পারার দক্ষতা অর্জনের ক্ষেত্রে সেরা উপায়গুলি কি কি।

What is spoken English?

একে অপরের সাথে মুখোমুখি কথোপকথনের জন্য আমরা যে ধরনের ইংরেজি ব্যবহার করি, সেটাই Spoken English. অর্থাৎ Spoken English এমন ধরনের ইংরেজি যা লোকেরা কথোপকথনের জন্য ব্যবহার করে। এই ইংরেজি পাঠ্য পুস্তকের ইংরেজি হতে পৃথক। অর্থাৎ তুমি শ্রেনিকক্ষে যে ইংরেজি শিখো, তা কথোপকথনের ইংরেজির জন্য প্রাসংগিক নয়। এ কারণেই অনেক বছর ধরে স্কুল কলেজে ইংরেজি পাঠ্য বই পড়েও আমরা ইংরেজি বলতে পারি না।

Why is spoken English important?

শ্রেণি পরীক্ষায় পাস  করা ও চাকুরী পাওয়া ছাড়াও সকল শিক্ষিত ব্যক্তিদের  ইংরেজি বলতে সক্ষম হওয়া দরকার। কারন ইংরেজি হল  World Language. বিশ্বের একজন নাগরিক হিসাবে সকল দেশের মানুষই এই ইংরেজি ভাষা  শিক্ষতে ও বলতে চায়। এছাড়া ইংরেজি বলতে পারাটা তোমাকে কাজের সুযোগ করে দেয়। ইংরেজি বলতে পারলে সবাই তাকে ভিন্ন দৃষ্টিতে দেখে ও তাকে আরও সম্মান দেয়।   একই মাতৃভাষা নয়, এমন দুই দেশের দুজন লোক যদি নিজেদের মধ্যে কথাবার্তা বলতে চায়, তবে তারা ইংরেজি ভাষার মাধ্যমে কথাবার্তা বলবে। এর অর্থ হ’ল ইংরেজি বলার মাধ্যমে বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন দেশের লোকের সাথে কথা বার্তা বলে যোগাযোগ করতে সক্ষম হওয়া যায়। এ ছাড়াও আরও অনেক কারনে ইংরেজি বলতে পারাটা জরুরী।

How will we learn to speak English?

এখন প্রশ্ন হলো কিভাবে ইংরেজি বলা শিখব। আজ আমি সেই বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা করব।   প্রথমেই মনে রাখতে হবে যে,  ইংরেজি জানা ও ইংরেজি বলতে পারা সম্পূর্ণ পৃথক। Grammar ও Word meaning জানাটাই কাউকে ইংরেজি বলতে দক্ষ করে না। কিন্তু কি কারণে এমন হয় যে,  আমি অনেক ইংরেজি জানি তারপরও আমি ইংরেজিতে কথা বলতে গেলে পারছি না। এই জবাবটাই আমি আজ তোমাদের সংগে শেয়ার করব।

1. Listen as much as you can:

What is the best way to speak English?-এর প্রথম টিপস হচ্ছে, কথা বলা শিখতে আগ্রহী হলে প্রথমেই যে কাজটা করতে হবে, তা হলো, যতোভাবে পারা যায়, ততভাবেই ইংরেজি শুনতে হবে, সহজ সহজ ইংরেজি, যা তুমি বুঝবে। লক্ষ্য করলে দেখবে, শিশুরা যখন কথা বলতে শেখেনি, তখন তারা শুধু শুনে যায়। শুনতে শুনতে তারা প্রথমে একটা দুইটা শব্দ উচ্চারণ করে। এভাবে শুনতে শুনতে তারা বড় বাক্য তৈরী করার কৌশল রপ্ত করে। তোমরা যারা ইংরেজি শিখতে চাও, তারা যতভাবে পারো ততভাবেই ইংরেজি শুনার চেষ্টা করো। প্রথম দিকে দেখবে তুমি তোমার দুই কান দিয়ে শুনেও কি ইংরেজি বলছে, তা বুঝতে পারবে না। তারপরেও শুনতে থাকো। একসময় দেখবে কিছু কিছু ইংরেজি বুঝা যাচ্ছে। যা বুঝা যায় বা যেটুকু বুঝতে পারো, তা মুখে উচ্চারণ করে বলা শুরু করতে হবে।  শিশুরা সবকিছু শুনতে ভালবাসে ও শুনা কথা তার সাথের খেলার সাথিদের Share করে বা বলতে ভালবাসে। বড়দের কাছ থেকে তারা ভূতের গল্প, গান, কবিতাসহ নানারুপ কিচ্ছা কাহিনী শুনে। এভাবে শুনে শুনে তারা কথা বলতে পারার Knack বা   Style আয়ত্ব করে। পরে  তারা যখন তার সংঙ্গী সাথিদের সাথে একত্রিত হয়, তখন তারা যা শুনেছে, তা নিয়ে গল্প করে, অর্থাৎ তখন কোন না কোনভাবে বড়দের নিকট থেকে শুনা কথা বলার চেষ্টা করে। এভাবে তারা তাদের মার্তৃভাষা বলা শেখে করে। কথা বলা শেখার জন্য শিশুরা এভাবে  চেষ্টা করে কথা বলা শেখে। আমরাও যারা নতুন কোন ভাষা শিখতে চাই, তখন শিশুদের মতো একইভাবে সেই ভাষা শিখতে হবে।

2. Master the questioning technique:

What is the best way to speak English?-এর দ্বিতীয় টিপস হচ্ছে, প্রশ্ন করার কৌশল আয়ত্ব করা। আমরা যদি লক্ষ্য করি তাহলে দেখব যে, শিশুরা যখন একটা দুইটা কথা বলা শিখে, তখন প্রথম যে কাজটা করে, তাহলো প্রশ্ন করা। শিশুরা যখন প্রথম দিকে কথা বলা শিখতে চায়, তখন লক্ষ্য করলে দেখবে যে,  শিশুটি শুধু প্রশ্ন করছে। দেখবে যে, ছোট শিশুদের নিয়ে তার বাবা কোথাও বেড়াতে গেলে বাড়ী থেকে বাহির হবার সাথে সাথে শিশুটি তার চারপাশে যা কিছু দেখে, তা নিয়ে একটার পর একটা প্রশ্ন  করছে, যেমন: এটা কি? ওটা কি? এই অবস্থায় বাবা যদি বলে ওটা ঘোড়া। তখন আবার শিশুটি বলবে ঘোড়া কি? তখন বাবা হয়ত বললো: এটা গরু বা খাসির মত একটা প্রাণি। তখন শিশুটি আবার প্রশ্ন করে বসবে: প্রাণি কি?  এক পর্যায়ে বাবা বিরক্ত হয়ে তার সন্তানকে ধমক দিয়ে চুপ করে থাকতে বলবে।  আসলে বাবা বুঝে উঠেতে পারে না যে, তার সন্তান এভাবে প্রশ্ন করে তাকে বিরক্ত করছে না। প্রশ্ন করার দ্বারা সে কথা বলা  শিক্ষার চেষ্টা করছে। প্রকৃতপক্ষে, শিশুটির ভেতরে তখন কাজ করে কথা বলার প্রবল ইচ্ছা। আর এই কথা বলাটা সে শিক্ষতে চায় একটার পর একটা প্রশ্ন করার মাধ্যমে।

আমরাও যদি কোন নতুন ভাষা শিখতে চাই, তবে আমাদেরকেও শিশুদের মতো একইভাবে সেই ভাষা শিখতে হবে। একইভাবে শিশুদের মতো কথা বলার প্রবল ইচ্ছা থাকতে হবে ও সে জন্য ইংরেজিতে একটার পর একটা  প্রশ্ন করা জানতে হবে। শিশুদের মত ভুলভাবে হলেও প্রশ্ন করা জানতে হবে।   শিশুদের মত তোমাদের চারপাশে যা কিছু দেখো, তা নিয়ে প্রশ্ন কর, শুধু প্রশ্ন, একটার পর একটা প্রশ্ন, তারপর নিজে নিজেই তার উত্তর দাও। Do, Did, Does দ্বারা প্রশ্ন তৈরী করার কৌশল আয়ত্ব করো;  Am, Is Are, Was, Were দ্বারা প্রশ্ন তৈরী করো; Have, Has, Had দ্বারা প্রশ্ন তৈরী করো;  Who, Which, What, Where, When and How দ্বারা প্রশ্ন তৈরী করা আয়ত্ব কর। প্রশ্ন করে কথা বলা শুরু করা ছাড়া কারো সংগেই  কোন কথা বলা শুরু করা যায় না। কোন দোকানে গেলে  দোকানদারের কাছ থেকে  প্রশ্ন করে জিনিষ চাইতে হয়;  বন্ধুর সাথে দেখা হলে প্রশ্ন করার মাধ্যমে তার ভাল-মন্দ জানতে চাওয়া হয়, বাসের টিকিট কাটতে গেলে প্রশ্নের মাধ্যমে কথা শুরু করতে  হয়, শিক্ষকের কাছে কিছু জানতে চাইলে তা প্রশ্নের মাধ্যমে জানতে হয়। যেখানেই কথা সেখানেই প্রশ্ন। । প্রশ্ন করতে পারাটাই হচ্ছে কোন ভাষা শেখার জন্য  প্রথম ও প্রধান ধাপ। তারপর বন্ধু বা পরিচিতজনদের মধ্যে যারা ইংরেজি বলা শিখতে চায়, তাদের সংগে দেখা হলে ছোট ছোট প্রশ্ন করে ইংরেজি বলা শুরু কর। ইংরেজি শিখার জন্য তোমার চোখ ও কানকে  কাজে লাগাও। দুই চোখে যা দেখবে, সেগুলোকে নিয়েই ইংরেজিতে প্রশ্ন তৈরী কর ও কান দিয়ে যা শুনবে তা তোমার কথাতে ব্যবহার করার চেষ্টা কর। কথা বলতে গিয়ে ভূল হোক সমস্যা নাই। প্রথমে কোন কাজই পুরোপুরি শুদ্ধ হয় না।

3. Imitate:

What is the best way to speak English?-এর তৃতীয় টিপস হচ্ছে, অনুকরণ করা। শিশুরা কথা বলা শিখার জন্য বড়দের কথা শুনে ও তাদের কথা Imitate বা অনুকরণ করে, অর্থাৎ বড়রা যা বলে, শিশুরা তা বারবার বলে। শিশুরা এটা করে তাদের শব্দের উচ্চারণ ঠিক করার জন্য। তুমিও ইংরেজির যা জানবে, তা উচ্চস্বরে বলে উচ্চারণ সঠিক করার চেষ্টা করতে হবে। নিজের ক্লাসের ইংরেজি বই জোড়ে জোড়ে পড়তে হবে। উচ্চারণ শিখার জন্য এটা একটি ভাল উপায়।

4. Learn new words:

What is the best way to speak English?-এর চতুর্থ টিপস হচ্ছে, নুতন নুতন শব্দ  জানা। Be the lover of learning of new words. প্রতিদিন কমপক্ষে একটি করে নুতন শব্দ ও তার বিস্তারিত ব্যবহার জানা ও তা নোট খাতায় লিখে রাখার অভ্যাস করতে হবে। সময় ও সুযোগ পেলে এই জানা শব্দগুলো দিয়ে বাক্য তৈরী করে বলার অভ্যাস করতে হবে।  শিশুরা কথা বলা শিখার জন্য তার চার পাশের জিনিষ পত্রের নাম জেনে নেয়, তোমরাও তোমাদের চার পাশে যে সকল জিনিষপত্র দেখ ও তাদের ইংরেজিতে কি বলা হয়, সেগুলো জেনে নাও। অর্থাৎ ধীরে ধীরে শব্দভান্ডার বাড়াতে হবে। মনে রাখতে হবে যে, Spoken English-এর শব্দ হচ্ছে আমরা চারপাশে দুচোখ দিয়ে যা দেখি, কান দিয়ে যা শুনি, প্রতিদিন যা করি, সেই বিষয়াদি বর্নণা করার জন্য যে শব্দ, তাই Spoken English-এর শব্দ। এই Spoken English-এর শব্দ School ও College-এ যে ইংরেজি পড়ি, তা থেকে পৃথক। 

5. Trying to think in English:

What is the best way to speak English?-এর পঞ্চম টিপস হচ্ছে, ইংরেজিতে ভাবার চেষ্টা করা। ইংরেজি শিখতে আসা শিক্ষার্থীরা ইংরেজিতে কি বলবে, তা নিজের মাতৃভাষায় ভাবে ও তারপর কথা বলার আগে তার মাথায় এটাকে ইংরেজিতে অনুবাদ করে ও তারপর বলে। এটি করা যাবে না। মাতৃভাষা থেকে ইংরেজিতে অনুবাদ করা ইংরেজি শুনতে অস্বাভাবিক লাগে। সাবলীলভাবে ইংরেজি বলা শিখতে চাইলে ইংরেজিতে ভাবা শিখতে হবে। দ্রুত ও সাবলীলভাবে ইংরেজি বলা শেখার রহস্যগুলোর মধ্যে একটি হলো সরাসরি ইংরেজিতে ভাবতে শেখা। এটি এমন একটি দক্ষতা যা অনুশীলনের মাধ্যমে আয়ত্বে আনতে যায়। তুমি যে কোন সময় এটা অনুশীলন  করতে পারো, বাড়ীতে বসে থাকার সময়, হাটাহাটি করার সময়, বাসে উঠে বসে থাকার সময়, লাইনে দাড়িয়ে অপেক্ষা করার সময়। এই অভ্যাসটি শুরু করার জন্য আজই কয়েক মিনিটের জন্য চিন্তা করার চেষ্টা করো।  

6. Grammar is not important, being able to speak is important:

What is the best way to speak English?-এর সর্বশেষ টিপস হচ্ছে, Grammar গুরুত্বপূর্ণ নয়, কথা বলতে পারাটাই গুরুত্বপূর্ণ। আমরা  কথা বলার সময় ব্যকারণগত ভূল হবার ভয়ে নার্ভাস হয়ে পড়ি। মনে রাখতে হবে যে, ইংরেজি বলতে পারাটাই হচ্ছে Spoken English-এর দক্ষতা। আর ব্যকরণগত ভূল না করা হচ্ছে Written English-এর দক্ষতা। তাই ভূল-শুদ্ধ যাই হোক, তুমি যতটুকু ইংরেজি জানো, তাই নিয়ে কথা বলা  শুরু করে দিতে হবে ও যা বলতে চাও তা বলে যেতে হবে। প্রথমে ধীরে ধীরে বলা Practice করতে হয়। আমি ইংরেজিতে Fluent, এটা বুঝানোর জন্য তুমি কখনোই দ্রুত কথা বলার চেষ্টা করবে না। দ্রুত কথা বললে শ্রোতার জন্য তা বুঝে উঠা কঠিন হয়। আস্তে কথা বলার দুটি সুবিধা রয়েছেঃ

  • তুমি কি বলতে চাও, তা ভেবে বলতে পারবে ও এতে করে আত্মবিশ্বাসী মনোভাব গড়ে উঠে।
  • আস্তে আস্তে বললে স্পষ্ট করে বলতে পারা যায় ও তাতে অন্য ব্যক্তির পক্ষে তোমার ইংরেজি বুঝা সহজ হয়।

আমার মতে ইংরেজি জানা ও জানা ইংরেজিতে কথা বলতে পারার জন্য এ পদ্ধতিগুলো খুবই কার্যকর। আমি নিশ্চিত যে, তুমি এ পদ্ধতিগুলো অনুসরণ না করলে তুমি কখনোই ইংরেজিতে কথা বলার দক্ষতা অর্জণ করতে পারবে না।

সব শেষে একটা কথা বলি, What is the best way to speak English? প্রশ্নটির সংক্ষিপ্ত জবাব তা হচ্ছে, ইংরেজিতে কথা বলার জন্য সকল উপায়গুলির সেরা উপায় হলো ’বলা বা বলতে আরম্ভ করা’। যা জানি, যতটুকু জানি তাই দিয়েই বলা শুরু করা। এই বলার প্রাকটিসটা করলে ইংরেজিতে কথা বলার দক্ষতা আয়ত্বে আসবে, সফলতা পাওয়া যাবে। 

These are all for today and thanks for learning with me.

Rezaul Karim

An English learner, content writer and tech enthusiast.

Rezaul Karim

Hi, my name is Rezaul Karim. I am an English teacher and founder of LearnEnglishWithRezaul.com. I work with non-native English learners to help them understand English grammar from basic to intermediate. I also help them improve their conversation skills, communication ability and to reduce their accent. I hope you may like my posts on this website.

This Post Has One Comment

  1. Riya

    Thank you sir. 🤍

Leave a Reply